অনলাইন ইনকাম

Why SEO (কেন এসইও) ? এসইও শিখে অনলাইন ইনকাম এর 9টি সেরা মাধ্যম

এসইও শিখে অনলাইন ইনকাম এর একটি দুর্দান্ত উপায় হতে পারে। 

একবার এসইও তে আপনার প্রয়োজনীয় দক্ষতা হয়ে গেলে, আপনি অনলাইন ইনকাম এর জন্য আপনার নিজস্ব ওয়েবসাইটের র্যাংকিং  শুরু করতে পারেন। অথবা এসইও দিয়ে অনলাইন ইনকাম এর অন্যান্য উপায় অন্বেষণ করতে পারেন।

এসইও অনলাইন ইনকাম এর খুব  দ্রুত পথ নয়, কিন্তু এসইও অনলাইন ইনকাম এর একটি অবিশ্বাস্য উপায়। এবং স্পেসশিপ  অনলাইন ইনকাম এর  একটি পদ্ধতি।

এছাড়াও, আপনি আপনার এসইও দক্ষতা ব্যবহার করে ওয়েবসাইট তৈরি,ওয়েবসাইট র্যাংকিং এর  জন্য ব্যবহার করেন। তবে আপনি কত অনলাইন ইনকাম করতে পারেন তার কোন সীমা নেই।

9টি ভিন্ন উপায়ে আপনি এসইও ব্যবহার করে অনলাইন ইনকাম করতে পারেন। এই পোস্টে আমি আপনাকে দেখাব কিভাবে এসইও থেকে অনলাইন ইনকাম করা যায়।

সুচিপত্র

What is SEO (এসইও কি)?

এসইও মানে আমরা সবাই বুঝি সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন। সোজা কথায় আপনার আমার টার্গেট ভিজিটরের ওপর ভিত্তি করে, সার্চ ইঞ্জিনের কিছু রুল ফলো করে, ওয়েবসাইটকে অপটিমাইজ করাকেই বলা হয় এসইও। 

অনেকে হয়তো বুঝতে পারতেছেন না,

সার্চ ইঞ্জিন কি?

আমরা যেখানে অনলাইনে কোন কিছু খোঁজার জন্য সার্চ করি, সেটাই হচ্ছে সার্চ ইঞ্জিন। যেমন গুগল ইয়াহু বিং ইত্যাদি।

আপনি যদি বলে সবথেকে বড় সার্চ ইঞ্জিন কোনটি?  সেটা হচ্ছে গুগল এবং এই কথাটি নিঃসন্দেহে বলতে পারেন। কারণ গুগল সার্চ ইঞ্জিন পুরো পৃথিবীতে ৬৫% সার্চ কাভার করে।

ব্রাউজার এবং সার্চ ইঞ্জিন পার্থক্য:

অনেকে সার্চ ইঞ্জিন এবং ব্রাউজার এর  মধ্যে ভুল বুঝে। আপনার হয়তো বুঝেন ব্রাউজার হচ্ছে সার্চ ইঞ্জিন? এটা হচ্ছে ভুল। 

ব্রাউজার যেমন Google Chrome বা Firefox. এগুলা হচ্ছে ব্রাউজার, এগুলা সার্চ ইঞ্জিন নয়।

যেমন গুগল Chrome গুগলের প্রোডাক্ট অর্থাৎ আপনি যদি Chrome  দিয়ে কোন কিছু সার্চ করেন, তাহলে সার্চ করার পরে যে ফলাফলগুলো পাবেন সেগুলো গুগল সার্চ ইঞ্জিন থেকে আসবে। 

আর যদি আপনি ফায়ারফক্স দিয়ে কোন কিছু সার্চ করেন, তাহলে এটা বিং থেকে আসবে। কারণ ফায়ারফক্স হচ্ছে মাইক্রোসফট এর প্রোডাক্ট। 

এছাড়াও আপনি যেকোন ব্রাউজারে, যে কোন সার্চ ইঞ্জিন সেটআপ করতে পারেন।

উদাহরণস্বরূপ Firefox এ আপনি গুগল সার্চ ইঞ্জিন সেটআপ করতে পারেন। অর্থাৎ Firefox এর যখন কোন সার্চ করবেন, তখন সেটা গুগল থেকে আসবে। যদি Firefox এ  গুগল সার্চ ইঞ্জিনটি ডিফল্ট সেটআপ করেন।

Why SEO (কেন এসইও) ?

অনলাইন ইনকাম এর সব ধরণের উপায় রয়েছে, যেমন একটি ইকমার্স স্টোর তৈরি করা, একটি জনপ্রিয় ব্লগ বাড়ানো, পরিষেবা এবং অনুমোদিত পণ্য বিক্রি করা, অনলাইন কোর্স এবং আরও অনেক কিছু।

যাইহোক, যদি আপনার ট্র্যাফিক না থাকে তবে আপনি এই পদ্ধতিগুলি দিয়ে কোন অনলাইন ইনকাম এর করবেন না। সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন হল একটি মৌলিক দক্ষতা যা অনলাইন ইনকাম এ আপনার সাফল্য আনলক করতে সাহায্য করতে পারে।

আপনার ওয়েবসাইটে ট্রাফিক পাওয়ার জন্য সার্চ ইঞ্জিন খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আমরা সাধারণত দুইভাবে ট্রাফিক পেতে পারি। পেইড ট্রাফিক এন্ড অর্গানিক ট্রাফিক। 

পেইড ট্রাফিকের জন্য আপনাকে টাকা খরচ করতে হবে। আর অর্গানিক ট্রাফিক পেতে হলে আপনাকে এসইও করতে হবে। এবং অর্গানিক ট্রাফিক সম্পূর্ণ বিনামূল্যে পাবেন।

উপরের চিত্রটি দেখুন, আমি গুগল সার্চ ইঞ্জিনের সার্চ দিলাম “Buy Smartphone in Bangladesh” অর্থ আমি বাংলাদেশ থেকে একটি স্মার্টফোন কিনতে চাই ।

আমার কীওয়ার্ডটি দিয়ে সার্চ করার পরে, আমি কিছু ফলাফল পেয়েছি। যদি আমি সেই ফলাফল গুলোতে ক্লিক করি, 

তাহলে সেই ওয়েবসাইটগুলো একটি ট্রাফিক পেল। আর সেই ট্রাফিকটা  হলাম আমি। আর এটা হচ্ছে অর্গানিক ট্রাফিক।

আর সেই ওয়েবসাইটের মালিকরা কিওয়ার্ড এর উপর ভিত্তি করে  ট্রাফিক পেল।

তারমানে নিচের ফলাফলের ওয়েবসাইটগুলো তার কীওয়ার্ড দিয়ে অপটিমাইজ করসে। যার কারণে গুগল সার্চ ইঞ্জিনে প্রথম স্থান দখল করেছে এবং ট্রাফিক পাচ্ছে। আর এই অপটিমাইজ এর প্রসেসটাকে বলা হয় এসইও।

অনলাইন ইনকাম এর এসইওটা কেন প্রয়োজন! আশা করি বুঝতে পেরেছেন।..

রিলেটেড আর্টিকেল:

এসইও ফ্রেন্ডলি রাইটিং, ব্লগ পোস্ট লেখার ১০টি টিপস যা গুগলে রাঙ্ক করবে

SEO কি? সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন কি? What Is SEO ?

On Page SEO কি ? অনপেজ এসইও কেন গুরুত্বপূর্ণ?

Types of SEO (এসইও এর প্রকারভেদ)?

আমরা অনেকেই বলি এসইও ২ প্রকার। ১. অনপেজ এসইও ২. অফ পেজ এসইও। হ্যা, একটা সঠিক।

আবার অনেকেই বলে, জেনারেল এসইও, ব্লগিং এসইও, লোকাল এসইও, ইন্টার্নেশনাল এসইও, ই-কমার্স এসইও ইত্যাদি ইত্যাদি। এটাও সঠিক

যদি আপনাকে বলে এসইও কত রকমের হয় অর্থাৎ টাইপস। প্রকারভেদ হচ্ছে এসইও তিন প্রকার:

  1. White hat SEO (সাদা টুপি এসইও):
  2. Black hat SEO (ব্ল্যাক হ্যাট এসইও):
  3. Grey hat SEO (ধূসর টুপি এসইও):

 নিচে তিন প্রকার এসইও সম্পর্কে আলোচনা করা হলো:

White hat SEO (সাদা টুপি এসইও):

White hat বা সাদা টুপি এসইও হচ্ছে ইথিক্যাল এসইও। অর্থাৎ ইথিক্যাল উপায় এসইও করার মেথড

  1. কোন হ্যাক লিঙ্ক এবং স্প্যাম নেই :
  2. আপনার নিজস্ব ওয়েবসাইটের কোন লিঙ্ক নেই :
  3. কোন ক্রয় লিংক নেই :
  4. কোন ডুপ্লিকেট কন্টেন্ট নেই :
  5. রেংকিং জন্য কোনো অবৈধ কিছু নাই :

কোন হ্যাক লিঙ্ক এবং স্প্যাম নেই :

হোয়াইট হ্যাট এসইও এর জন্য আপনাকে এটা নিশ্চিত করতে হবে যে, আপনার ওয়েবসাইটে কোন হ্যাক লিংক অথবা এবং স্প্যাম নাই।

উদাহরণস্বরূপ আপনি দারাজ থেকে একটি ব্যাকলিংক নিলেন, দারাজ ওয়েবসাইট হ্যাক করে। অথবা আপনি স্পামিং করলেন। যেটা এসইওর রুলস এর মধ্যে পড়ে না।

আপনার ওয়েবসাইটের এই ভুলগুলা কখনো করবেন না। white hat seo  এর মধ্যে এটাই উল্লেখ করা আছে।

আপনার নিজস্ব ওয়েবসাইটের কোন লিঙ্ক নেই :

আমরা সবাই জানি র্যাঙ্কিংয়ের জন্য ব্যাকলিংক খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। আপনার নিজস্ব ওয়েবসাইটের কোন লিঙ্ক নেই মানে আপনার নিজস্ব ওয়েবসাইটে ব্যাকলিংক না করা।

উদাহরণস্বরূপ, যেহেতু ব্যাকলিংক র্যাঙ্কিংয়ের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে, তাই যদি আপনি ব্যাকলিংক স্থাপনের জন্য অনেকগুলো ওয়েবসাইট তৈরী করলেন এবং সে ওয়েবসাইটগুলোতে আপনি নিজেই আপনার ওয়েবসাইট ব্যাকলিংক করলেন। হোয়াইট হ্যাট এসইওতে এটা  না করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

যদি আপনি এই কাজটি করেন, সার্চ ইঞ্জিনগুলো যদি জানতে পারে, তাহলে অবশ্যই আপনার ওয়েবসাইটে সার্চ ইঞ্জিনগুলো রেংকিং এ শাস্তি দিবে।

তাই নিজের ওয়েবসাইটে ব্যাকলিংক না করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

কোন ক্রয় লিংক নেই :

কোন ক্রয় লিংক নেই অর্থ হচ্ছে আপনার ওয়েবসাইট ব্যাকলিংক করার জন্য কোন ব্যাকলিংক না ক্রয় করা। 

হঠাৎ আপনি কোন একটি এজেন্সি থেকে ব্যাকলিঙ্ক কিনতেছেন। কিন্তু গুগল আপনাকে ব্যাকলিঙ্ক ক্রয় করা নিষেধ করে। আপনি লিগেল ওয়েতে ব্যাকলিঙ্ক ক্রিয়েট করবেন।

আপনি আপনার নিস ভিত্তিক ওয়েবসাইটে গেস্ট পোস্টিং এর মাধ্যমে ব্যাকলিংক তৈরি করবেন। এতে আপনার ওয়েবসাইট গুগল রেংকিং উন্নতি হবে।

কোন ডুপ্লিকেট কন্টেন্ট নেই :

আপনাকে অবশ্যই নিশ্চিত হবে হতে হবে, আপনার ওয়েবসাইটে কোন ডুবলিকেট কনটেন্ট নাই। অর্থাৎ অন্য কারো কনটেন্ট আপনার ওয়েবসাইটে ব্যবহার ব্যবহার করা নাই।

ডুবলিকেট কনটেন্ট বলতে আপনার বুজায় আর্টিকেল, ইমেজ এবং কনটেন্ট  ফরমেট। ডুবলিকেট কনটেন্ট এর জন্য ইমেজও গুরুত্বপূর্ণ ।

বর্তমানে অনেক সফটওয়্যার পাওয়া যায়, যার মাধ্যমে আপনি একটি আর্টিকেল ডুবলিকেট করতে পারবেন। তবে আপনি কখনো এভাবে আর্টিকেল ডুবলিকেট করে আপনার ওয়েবসাইটে ব্যবহার করবেন না।

রেংকিং জন্য কোনো অবৈধ কিছু নাই :

ওয়েবসাইট রেংকিং আনার জন্য অবশ্যই সার্চ ইঞ্জিনের রুলস গুলো  ভঙ্গ করবেন না।

উদাহরণস্বরূপ ওয়েবসাইটের র্যাংকিং  আনার জন্য একাধিকবার টাইটেলে একই  শব্দ ব্যবহার করা। অথবা ডেসক্রিপশনে একাধিকবার একই শব্দ ব্যবহার করা ইত্যাদি।

আপনাকে সব সময় ইউজার ফ্রেন্ডলি করে একটি পরিপূর্ণ সেন্টেন্স লিখতে হবে।

যদি আপনি র্যাংকিংয়ে সুবিধা করার জন্য অবৈধ পদ্ধতি বেছে নেন। এবং সার্চ ইঞ্জিন যদি এটা জেনে যায়, তাহলে আপনার ওয়েবসাইকে সার্চ ইঞ্জিন কি পানিশমেন্ট দিবে।

বর্তমানে যদি আপনি এরকম অন্যায় করেন, অবশ্যই সার্চ ইঞ্জিন ধরে ফেলবে। কারন বর্তমানে সার্চ ইঞ্জিন  গুলো খুবই পাওয়ারফুল ও সেনসেটিভ।

তাই সার্চ ইঞ্জিন পরিষ্কারভাবে বলে দিয়েছে, ওয়েবসাইট রেংকিং এর সুবিধা করার জন্য অবৈধ কিছু করবেন না।

Black hat SEO (ব্ল্যাক হ্যাট এসইও):

ব্ল্যাক হ্যাট এসইও হচ্ছে illegal (অবৈধ) অথবা নেগেটিভ এসইও।  অর্থাৎ নেগেটিভ উপায় এ এসইও করার মেথড ।

  1. নেগেটিভ বা অবৈধ এসইও :
  2. হ্যাক লিংক ইউজ :
  3. Rank করার জন্য অবৈধ কিছু করা :

নেগেটিভ বা অবৈধ এসইও :

Black hat SEO (ব্ল্যাক হ্যাট এসইও) বলতে নেগেটিভ বা অবৈধ কে বুঝায়। অর্থাৎ আপনি আপনার ওয়েবসাইট টপ রেংকিং করার জন্য কোন নেগেটিভ বা অবৈধ পদ্ধতি বেছে নিলেন।

হ্যাক লিংক ইউজ :

এখানে বলা হয়েছে অবৈধ উপায়ে আপনার ওয়েব সাইটের ব্যাকলিংক করা। একটি বড় ধরনের অন্যায়। সমস্ত সার্চ ইঞ্জিন এই অন্যায়গুলো করতে নিষেধ করে।

Rank করার জন্য অবৈধ কিছু করা :

আপনার ওয়েবসাইট টপ রেংকিং আনার জন্য অবৈধ কিছু করা। অনলাইন ইনকাম এর সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ স্কিল হচ্ছে এসইও

এক সময় মানুষ ওয়েবসাইটকে সার্চ ইঞ্জিনকে টপ র্যাংকিং আনার জন্য বিভিন্ন অবৈধ এসইও করত, তবে এখন সার্চ ইঞ্জিনগুলো খুবই স্মার্ট হয়ে গেছে। 

আপনি যদি অবৈধ পথে এসইও করে আপনার ওয়েবসাইট টা টপ র্যাংকিং আনতে  চান, তাহলে সার্চ ইঞ্জিনগুলো  ধরে ফেলবে। আপনার ওয়েবসাইটে টপ র্যাংকিং দেবে না এবং অবৈধ এসইও করার জন্য আপনার ওয়েবসাইটকে শাস্তি দেওয়া হবে।

Grey hat SEO (ধূসর টুপি এসইও):

Grey hat SEO (ধূসর টুপি এসইও) হলো: হোয়াইট হ্যাট এসইও এবং ব্ল্যাক হ্যাট এসইও এর সংমিশ্রণ।

White hat SEO (সাদা টুপি এসইও) এবং ব্ল্যাক হ্যাট এসইও বা নেগেটিভ এসইও, এই দুইটার সংমিশ্রণে যে এসইও করা হয়, তাকে বলা হয় Grey hat SEO (ধূসর টুপি এসইও)

কিভাবে এসইও শিখব

গুগলে সার্চ সম্পর্কে আর্টিকেলে বিভিন্ন এসইও ধারণা এবং সর্বোত্তম অনুশীলন। এছাড়া আপনি আমার ইউটিউব চ্যানেল থেকে শিখতে পারেন।। এসইও শেখার জন্য প্রয়োজনীয় সময়কে আলাদা করে রাখা দরকার।

এসইও সম্পর্কে সবচেয়ে বড় বিষয় হল যে আপনি আপনার সেবা প্রদান ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেসে শুরু করতে পারেন এবং এসইও বিশেষজ্ঞ হওয়ার পথে আপনার বেতন পেতে পারেন।

  • ক্লায়েন্ট সাইট সহ আপনার ওয়েবসাইটের জন্য সার্চ ইঞ্জিন ট্র্যাফিক এবং র্যাঙ্কিং বৃদ্ধি করতে পারে।
  • আপনার নিজের ব্যবসা বাড়াতে আপনি তৃতীয় পক্ষের এসইও এজেন্সির উপর নির্ভরশীল হবেন না।
  • আপনি যদি আউটসোর্স করার সিদ্ধান্ত নেন, তাহলে কার সাথে কাজ করবেন সে সম্পর্কে আপনি আরও ভালো সিদ্ধান্ত নিতে পারেন।
  • আপনি শেখার সাথে সাথে আপনার দক্ষতা আরও বাড়ানোর জন্য আপনি একটি এসইও বা বিপণন সংস্থার সাথে একটি চাকরি পেতে পারেন

প্রায় প্রতিটি অনলাইন ব্যবসা এসইও কৌশল থেকে উপকৃত হতে পারে। এমনকি যদি আপনার একটি ট্র্যাফিক উৎস থাকে যা দুর্দান্ত কাজ করে, তবুও আপনি অনলাইন ইনকাম বাড়ানো, ব্যবসাকে আরও স্থিতিস্থাপক করতে SEO যোগ করতে পারেন।

এসইও শিখতে আপনি যে পথটি অনুসরণ করতে পারেন তা এখানে দেখুন:

  1. সার্চ ইঞ্জিন কিভাবে কাজ করে এবং কিভাবে তারা বিষয়বস্তু সূচী করে তা বুঝে নিন
  2. মৌলিক সার্চ ইঞ্জিন মার্কেটিং ধারণা শিখুন
  3. সার্চ ইঞ্জিনগুলি কী খুঁজছে তা বুঝুন (যেমন অনুসন্ধানকারীরা পছন্দ করে এমন মানের সামগ্রী)
  4. সঠিক উপায়ে কন্টেন্ট অপটিমাইজ করতে শিখুন
  5. সঠিক SEO টুলস নির্বাচন করুন
  6. আপনি যা শিখেছেন তা ওয়েবসাইট এবং অন্যান্য প্রকল্পের সাথে প্র্যাকটিস করুন
  7. অন পেজ এবং অফ পেজ এসইও শিখুন

একবার আপনি উপরের পথ দিয়ে আপনি এসইও শিখার পর , আপনি আপনার এসইও দক্ষতা এবং জ্ঞান থেকে অর্থ উপার্জন শুরু করতে নীচের পদ্ধতিগুলি ব্যবহার শুরু করতে পারেন।

এসইও দিয়ে অর্থ উপার্জনের 10 সেরা উপায়:

রিলেটেড আর্টিকেল:

অনলাইন ইনকাম এর ৫টি সেরা উপায়

1. একটি এসইও ব্যবসা শুরু করুন:

অনলাইন ইনকাম
এসইও শিখে ব্যবসা করে অনলাইনে ইনকাম

অনলাইন ইনকাম এর জন্য ওয়েবসাইটের মালিকরা প্রতিনিয়ত কিভাবে নতুন নতুন গ্রাহক এবং ক্লায়েন্ট পেতে পারে তার সন্ধানে রয়েছেন। এর জন্য একটি দুর্দান্ত বাহন হ’ল ওয়েবসাইটের ট্র্যাফিক বাড়ানো।

কিন্তু, ওয়েবসাইটে ট্রাফিক বৃদ্ধি করা ব্লগ পোস্ট প্রকাশ করার মত সহজ নয়। ফলে, ব্যবসার মালিকরা এসইও পেশাদারদের উপর নির্ভর করে, তাদের পক্ষে আরও অনুসন্ধান ইঞ্জিন ট্র্যাফিক তৈরি করতে সহায়তা করার জন্য।

এসইও একমাত্র স্কিল, যার মার্কেট শুধুমাত্র বৃদ্ধি অব্যাহত রয়েছে। অনলাইন ইনকাম এর জন্য এসইও শিল্পের মূল্য প্রায় 80 বিলিয়ন ডলার, যা দিন দিন বেড়েই চলেছে।

একবার আপনি আপনার নিজের ওয়েবসাইট, বা ব্যক্তিগত প্রকল্পে র্যাংকিং এ কিছু সাফল্য পেয়ে গেলে, আপনি ক্লায়েন্টদের কাছে এই পরিষেবাটি সেল করতে পারেন।

একটি এসইও ব্যবসা চালানো সবার জন্য নয়। এটি একটি টন কাজ হতে পারে, এবং ক্লায়েন্ট সম্পর্ক এবং প্রত্যাশাগুলি পরিচালনা করতে আপনার অনেক সময় লাগতে পারে। এর জন্য আপনাকে প্রতিনিয়ত প্রচুর পরিশ্রম করতে হবে।

এখানে আপনার নিজের এসইও ব্যবসা শুরু করার কিছু সুবিধা এবং অসুবিধা বলা হলো:

একটি এসইও ব্যবসা চালানোর সুবিধা:

  • ক্লায়েন্টদের থেকে ধারাবাহিক মাসিক ধারক
  • আয়ের সীমা খুব বেশি
  • এসইও শিল্প শুধুমাত্র বৃদ্ধি অব্যাহত

একটি এসইও ব্যবসা চালানোর অসুবিধা:

  • ক্লায়েন্ট ম্যানেজমেন্ট খুব সময়সাপেক্ষ এবং চাপযুক্ত হতে পারে
  • যখন আপনি কর্মী এবং ওভারহেডে ফ্যাক্টর করেন তখন মার্জিন পাতলা হতে পারে
  • আপনার অন্যান্য দক্ষতা যেমন নিয়োগ, টিম ম্যানেজমেন্ট এবং আরও অনেক কিছু প্রয়োজন হবে

এসইও ক্লায়েন্ট খোঁজা:

আপনার আপনার এসইও ব্যবসার জন্য বিভিন্ন উপায়ে আপনি লিড এবং ক্লায়েন্ট তৈরি করতে পারেন।

আপনি যদি নিয়মিত এসইও ব্লগ বজায় রাখেন বা প্রাসঙ্গিক সাইটে অতিথি পোস্টিং রাখেন, তবে আপনার কাছে লিড পৌঁছাতে পারে, তবে কিছু লিড প্রজন্মের কৌশল রয়েছে যা আপনি কাজে লাগাতে পারেন:

  • লিঙ্কডইন এবং কোল্ড ইমেইলের মাধ্যমে ব্যবসার কাছে পৌঁছানো
  • টার্গেট কোম্পানি যারা বিজ্ঞাপনে অর্থ ব্যয় করছে, কিন্তু জৈবিকভাবে ranking করছে না
  • অনলাইন মার্কেটিং ডিরেক্টরিতে আপনার কোম্পানির তালিকা করুন
  • স্থানীয় অনুসন্ধান ফলাফলে আপনার কোম্পানিকে উচ্চ মর্যাদা দিতে আপনার এসইও দক্ষতা ব্যবহার করুন

একটি এসইও ব্যবসা চালানো আপনার সাফল্য আপনার ক্লায়েন্টদের জন্য আপনি যে ফলাফল প্রদান করেন তার উপর নির্ভর করে।

আপনি কত টাকা অনলাইন ইনকাম করতে পারেন? 

একটি এসইও ব্যবসার সাথে, আপনার সংস্থা কত উপার্জন করতে পারে তার কোন সীমা নেই। আপনি আপনার ক্লায়েন্ট সংখ্যা এবং আপনার দলের আকার দ্বারা সীমিত। 

সাধারণভাবে, অনলাইন ইনকাম এর জন্য এসইও পরিষেবার জন্য মাসিক ধারক হার প্রায় $ 6,000 ।

2. একটি SEO ফ্রিল্যান্সার হয়ে উঠুন:

অনলাইন ইনকাম
এসইও শিখে ফাইবারে কাজ করে অনলাইন ইনকাম। ফাইবার মার্কেটপ্লেস সম্পর্কে আরো জানতে websoriful চ্যানেল দেখুন।

যদি আপনি একটি এসইও ব্যবসা চালানোর আইডিয়া পছন্দ করেন, কিন্তু একটি পূর্ণাঙ্গ এজেন্সি তৈরি করা অনেক বেশি কাজ, তাহলে এসইও বা ডিজিটাল মার্কেটিং ফ্রিল্যান্সার হওয়ার কথা বিবেচনা করুন।

অনলাইন ইনকাম এর জন্য যদি আপনি এসইওর একটি নির্দিষ্ট অংশ খুঁজে পান, যা আপনি উপভোগ করেন। তাহলে আপনি এই নির্দিষ্ট দক্ষতার জন্য আপনার পরিষেবাগুলি সেল করতে পারেন।

উদাহরণস্বরূপ, অনলাইন ইনকাম এর জন্য হয়তো আপনি খুঁজে পেয়েছেন যে আপনি কীওয়ার্ড রিসার্জ উপভোগ করেন। আপনি একটি এজেন্সি বা ওয়েবমাস্টারের সাথে অংশীদার হতে পারেন এবং এই নির্দিষ্ট পরিষেবাটি অফার করতে পারেন। অথবা Upwork, Fiverr এর মত একটি ফ্রিল্যান্সার প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করুন। এবং সেই দক্ষতার জন্য SEO কাজের জন্য বিড করুন।

খণ্ডকালীন ফ্রিল্যান্সার হিসাবে, বিভিন্ন ধরণের প্রকল্প রয়েছে যা আপনি নিতে পারেন, যেমন:

  • কীওয়ার্ড রিসার্জ 
  • এসইও নিরীক্ষা
  • অনসাইট কন্টেন্ট অপটিমাইজেশন
  • ব্যাকলিঙ্ক বিল্ডিং

আপনি কত টাকা অনলাইন ইনকাম  করতে পারেন?

একজন ফ্রিল্যান্সার হিসাবে, আপনার হার অভিজ্ঞতার উপর নির্ভর করে। আপনি প্রতি প্রকল্প বা প্রতি ঘন্টায় মূল্য দিতে পারেন, সাধারণত Upwork, হার $ 10-100 প্রতি ঘন্টা পরিসরে পড়ে।

3. একটি ব্লগ সাইট তৈরি করুন এবং বিজ্ঞাপন থেকে অনলাইন ইনকাম করুন:

এসইও শিখে নিজে ব্লগ সাইট তৈরি করে অনলাইন ইনকাম
এসইও শিখে নিজে ব্লগ সাইট তৈরি করে অনলাইন ইনকাম

আপনার যদি কঠিন এসইও দক্ষতা থাকে, তবে আপনি একটি ব্লগ থেকে অর্থ উপার্জন করতে পারেন| যা প্রচুর পরিমাণে ট্র্যাফিক পায়। ব্লগ income এর সবচেয়ে সহজ ফর্মগুলির মধ্যে একটি হল পেইড বিজ্ঞাপন।

প্রদত্ত বিজ্ঞাপনগুলির মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় ফর্মগুলির মধ্যে রয়েছে:

  • গুগল অ্যাডসেন্স এবং মিডিয়া.নেটের মতো অনুরূপ প্রদানকারী
  • কাস্টম ব্যানার বিজ্ঞাপন
  • স্পনসর করা কন্টেন্ট

একজন ব্লগার হিসেবে সাফল্য পেতে আপনার এমন একটি ব্লগিং ক্যাটাগরি প্রয়োজন, যা উচ্চ পরিমানের ট্রাফিক পায় এবং প্রতিযোগিতার চরম মাত্রা নেই।

আপনাকে এমন একটি স্থান খুঁজে বের করতে হবে যা প্রচুর পরিমাণে ট্রাফিক পায় কিন্তু অত্যন্ত প্রতিযোগিতামূলক নয়।

মনে রাখবেন যে বিজ্ঞাপন দিয়ে এসইও থেকে অর্থ উপার্জন করতে আপনার খুব বেশি পরিমাণে ট্র্যাফিকের প্রয়োজন হবে। 

আপনি একটি ওয়েবসাইট তৈরি করতে চান, তা যদি ট্রাফিকের ক্ষেত্রে সীমাবদ্ধ থাকে।  তাহলে আপনাকে অন্য উপায়ে নগদীকরণের প্রয়োজন হতে পারে।

আপনি কত টাকা অনলাইন ইনকাম করতে পারেন?

আবার, আপনি যে অর্থ উপার্জন করতে পারেন তা পরিবর্তনশীল। এটি নির্ভর করে আপনি যে পরিমাণ ট্রাফিক পাচ্ছেন এবং প্রতি 1,000 দর্শক থেকে আপনি যে উপার্জন করছেন তার উপর।

বিজ্ঞাপনের রাজস্ব থেকে প্রতি মাসে $ 40k এর বেশি উপার্জনকারী সাইটের উদাহরণ রয়েছে, কিন্তু এই স্তরে পৌঁছতে সময় লাগবে।

এসইও শিখে এফিলিয়েট মার্কেটিংয়ের মাধ্যমে অনলাইন ইনকাম
এসইও শিখে এফিলিয়েট মার্কেটিংয়ের মাধ্যমে অনলাইন ইনকাম

এফিলিয়েট মার্কেটিং হল অনলাইনে অর্থ উপার্জনের অন্যতম জনপ্রিয় উপায়। এটি প্রতিযোগিতামূলক, কিন্তু প্রকৃত এসইও দক্ষতা সম্পন্ন ব্যক্তি হিসাবে, আপনার সাফল্যের সম্ভাবনা অনেক বেশি।

অনলাইন ইনকাম এর জন্য আপনি একটি অ্যাফিলিয়েট ওয়েবসাইট কত বড় তৈরি করতে পারেন, তার কোন সীমা নেই।

অনলাইন ইনকাম এর জন্য অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এর মাধ্যমে, আপনি কমিশন এর বিনিময়ে উচ্চ মানের পণ্য প্রচার করেন যখন কেউ আপনার অ্যাফিলিয়েট লিঙ্কের মাধ্যমে কেনার সিদ্ধান্ত নেয়।

অ্যাফিলিয়েট পোস্টগুলির সবচেয়ে সাধারণ ফর্ম হল “সেরা” পোস্ট এবং “পণ্য পর্যালোচনা”। এখানে আপনাকে সৎ হতে হবে অর্থাৎ নকল বা ২ নাম্বার প্রোডাক্ট সম্পর্কে ভালো রিভিউ দেয়া যাবে না।

যখন একজন অনুসন্ধানকারী গুগলে এই ধরণের কীওয়ার্ড টাইপ করছে, তখন তারা কেনার পর্যায়ে রয়েছে। 

সুতরাং, যদি তারা আপনার ওয়েবসাইটে ক্লিক করে, তাহলে তারা আপনার লিঙ্ক থেকে কিনতে যাচ্ছে, এমন একটি ভাল সুযোগ রয়েছে।

SEO এর মাধ্যমে একটি সফল অ্যাফিলিয়েট সাইট তৈরি করা সত্যিই একটি নিষ্ক্রিয় আয়। যাইহোক, আপনি জৈব ট্রাফিক , এবং বিক্রেতাদের কাছ থেকে প্রদানের উপর নির্ভরশীল (যা পরিবর্তন হতে পারে)।

আপনি কত টাকা অনলাইন ইনকাম করতে পারবেন?

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিংয়ে আয়ের সম্ভাবনার বিস্তৃত পরিসর রয়েছে, কিন্তু এমন ওয়েবসাইট রয়েছে যেমন অ্যাফিলিয়েট কমিশনে মিলিয়ন মিলিয়ন ডলার উপার্জন করে। এবং এমনকি একক ব্লগ $ 100k এরও বেশি উপার্জন করে।

5. একটি ই -কমার্স স্টোর তৈরি করুন এবং শারীরিক পণ্য বিক্রি করুন:

এসইও শিখে ই-কমার্স ব্যবসা করি অনলাইনে ইনকাম
এসইও শিখে ই-কমার্স ব্যবসা করি অনলাইনে ইনকাম

আপনি যদি এসইও জানেন, তাহলে আপনি অনলাইন ইনকামের জন্য সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন ব্যবহার করতে ই-কমার্স ব্যবসা শুরু করতে পারেন। সার্চ ইঞ্জিন ট্র্যাফিক অবিশ্বাস্যভাবে নির্ভরযোগ্য উৎস হতে পারে।

আপনি কীওয়ার্ড রিসার্চ পরিচালনা করতে পারেন, যাতে আপনার কাস্টমাররা আপনার প্রোডাক্ট খুঁজতে কীওয়ার্ড ব্যবহার করবে।

একটি ইকমার্স স্টোর নির্মাণের সব ধরণের সুবিধা রয়েছে যেমন:

  • এটি একটি উচ্চ অনলাইন ইনকাম এর প্রোডাক্ট সহ একটি বৈধ ব্যবসায়িক মডেল
  • আপনার ব্র্যান্ডের উপর আপনার সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ আছে
  • ই -কমার্স বাজার শুধুমাত্র বছরের পর বছর বৃদ্ধি পেতে থাকে

যাইহোক, একটি ইকমার্স ব্র্যান্ড তৈরির সাথে এই প্রক্রিয়ার সাথে জড়িত কিছু অতিরিক্ত পদক্ষেপ রয়েছে:

  • পণ্য তৈরি করা (বা ড্রপশিপিং পণ্য সোর্সিং)
  • প্রাথমিক পণ্য বিক্রি করা এবং প্রতিক্রিয়া পাওয়া
  • পণ্য উন্নত করা এবং দ্রুত শিপিং পরিচালনা করা
  • ভালো কাস্টমার সার্ভিস সরবরাহ করা

 আপনি কত টাকা অনলাইন ইনকাম করতে পারেন?

একটি ইকমার্স স্টোর চালানোর সময় আপনি কত উপার্জন করতে পারেন তার কোন সীমা নেই। এটা আপনার প্রোডাক্ট এবং জনপ্রিয়তা উপর নির্ভরশীল।

6. একটি ইকমার্স স্টোর তৈরি করুন এবং ডিজিটাল পণ্য বিক্রি করুন:

এসইও শিখে কোর্স সেল করে অনলাইন ইনকাম
এসইও শিখে কোর্স সেল করে অনলাইন ইনকাম

এসইও অনুশীলন করছেন এবং কিছু বাস্তব ফলাফল পেয়েছেন। আপনি আপনার জ্ঞানকে প্যাকেজ করতে পারেন এবং এটি একটি কোর্স হিসাবে বিক্রি করতে পারেন। উদাহরণস্বরূপ ghoori learning

মনে রাখবেন যে, এসইও স্থানটি নিম্নমানের কোর্স দ্বারা প্লাবিত হয়েছে, তাই আপনি যদি একটি কোর্স তৈরি করতে যাচ্ছেন তবে আপনি নিশ্চিত করতে চান যে এটি মূল এবং অনন্য কিছু।

 যদি এটি বাস্তব ফলাফল দ্বারা সমর্থিত হয়, যা আপনি নিজের জন্য বা ক্লায়েন্টদের জন্য তৈরি করতে সক্ষম হয়েছেন, এটা অনেক ভাল।

আপনার কোর্স বিক্রি শুরু করার আগে আরেকটি বিবেচনার বিষয় হল শ্রোতা তৈরি করা। অবশ্যই, আপনি পেইড ট্রাফিক চ্যানেলগুলির সুবিধা নিতে পারেন , কিন্তু আপনি ইতিবাচক  না হওয়া পর্যন্ত কিছু সময় নিতে পারেন, বিশেষ করে কোন শ্রোতা ছাড়াই।

এসইও কোর্সগুলি অত্যন্ত লাভজনক হতে পারে যেহেতু আপনাকে শুধুমাত্র একবার কোর্সটি তৈরি করতে হবে এবং আপনি এটি বারবার বিক্রি করতে পারেন।

আপনি কত টাকা অনলাইন ইনকাম করতে পারেন?

অনলাইন কোর্স থেকে আপনি যে পরিমাণ উপার্জন করতে পারেন তা ব্যাপকভাবে পরিবর্তিত হয়। 

একাধিক কোর্স নির্মাতা আছেন যারা বছরে $ 100k এর বেশি উপার্জন করেন, তবে এটি আপনার শ্রোতা এবং আপনার কোর্সের মানের উপর নির্ভর করে।

8. একটি এজেন্সি বা কোম্পানিতে এসইও জব পান:

এসইও -তে প্রবেশ করা অনেক লোক কোনও সংস্থার জন্য কাজ করার স্বপ্ন দেখে না। কিন্তু, এটি আপনার দক্ষতা বাড়ানোর জন্য অর্থ প্রদানের একটি অবিশ্বাস্য উপায় হতে পারে।

যখন আপনি কোনও এজেন্সির জন্য কাজ করেন, তখন আপনি একাকী ফ্রিল্যান্সার হিসাবে আপনার চেয়ে অনেক বড় প্রকল্প গ্রহণ করতে যাচ্ছেন।

 ক্লায়েন্টদের সাথে কাজ করার মাধ্যমে আপনি শিখতে সক্ষম হবেন যে, কিভাবে বড় আকারের প্রকল্পগুলি শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত কার্যকর করা হয়।

উদাহরণস্বরূপ, বড় ক্লায়েন্ট প্রজেক্টের মাধ্যমে আপনি টেকনিক্যাল এসইও , ওয়েবসাইট বিশ্লেষণে কিভাবে গভীর ডাইভ করবেন এবং এমনকি উপস্থাপনা এর মতো বিষয়গুলি শিখবেন।

একমাত্র আসল ত্রুটি হল, দীর্ঘ সময় এবং সাধারণত একটি এজেন্সির জন্য কাজ করার বিশৃঙ্খল পরিবেশ। এবং অন্য কারও জন্য কাজ করা যা আপনি খুঁজছেন তা নাও হতে পারে।

আপনি কত টাকা অনলাইন ইনকাম করতে পারবেন?

কোন সংস্থায় আপনি যে পরিমাণ উপার্জন করবেন, তা আপনার অভিজ্ঞতার উপর নির্ভর করে। আপনি যে বেতন পেতে পারেন তা প্রতি বছর $ 40k থেকে $ 100k পর্যন্ত হতে পারে।

9. Fiverr- এ মাইক্রো-এসইও পরিষেবা বিক্রি করুন:

আপনি জানেন যে, এসইও  কার্যকরভাবে চালানোর জন্য বিভিন্ন কাজ করতে হবে। এটি একটি একক ব্যক্তির জন্য অনেক কিছু।

কিছু সাধারণ কাজের মধ্যে রয়েছে:

  • গভীরভাবে সাইট নিরীক্ষা
  • ব্যাকলিঙ্ক বিল্ডিং
  • বিষয়বস্তু লেখা
  • সোশ্যাল মিডিয়ার জন্য আউটরিচ
  • প্রযুক্তিগত অপটিমাইজেশন
  • কীওয়ার্ড গবেষণা
  • এবং আরো

আপনি যদি এই প্রক্রিয়ার একটি অংশ আয়ত্ত করে থাকেন, তাহলে আপনি এই মাইক্রো-এসইও পরিষেবাগুলি ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেসে বিক্রি করতে পারেন। এটি এসইও থেকে অনলাইন ইনকাম এর অনেক জনপ্রিয় একটি মাধ্যম।

আপনি আপনার পরিষেবাগুলি বিভিন্ন ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেসে সেল করতে পারেন, তবে সবচেয়ে কার্যকরগুলির মধ্যে একটি হল ফাইভার। 

ফাইবার মার্কেটপ্লেস খুবই জনপ্রিয় কারণ এটি সাধারণত সস্তা কাজের সাথে যুক্ত। যাইহোক, আপনি আপনার প্যাকেজগুলিতে আপসেল অফার করতে পারেন এবং আপনার সম্পূর্ণ করা কাজগুলির জন্য উপযুক্ত অর্থ উপার্জন করতে পারেন।

এসইও শিখে অনলাইন ইনকাম এর জন্য Fiverr এবং Upwork মত অন্যান্য ফ্রিল্যান্স মার্কেটপ্লেস খুব উপকারী হতে পারে।

আপনি Fiverr এ কত উপার্জন করতে পারেন তার একটি সীমা আছে। আপনার এসইও ক্যারিয়ার শুরু করার জন্য এটি একটি দুর্দান্ত জায়গা, তবে সম্ভবত এমন একটি প্ল্যাটফর্ম নয় যা আপনি চিরকাল ব্যবহার করতে চান।

আপনি কত টাকা অনলাইন ইনকাম করতে পারবেন?

ফাইভারে আপনি যে গিগগুলি অফার করেন তা $ 5 থেকে শুরু হয়, তবে আপনি আপগ্রেড এবং উচ্চ-স্তরের প্যাকেজগুলি দিয়ে সত্যিই উপার্জন শুরু করতে পারেন। কিছু ফ্রিল্যান্সার প্রতি মাসে $ 2-3k এর মধ্যে উপার্জন করছে।

মূল কথা:

আপনি দেখতে পাচ্ছেন যে, আপনার পরিষেবাগুলি অফার করে এসইও দিয়ে অনলাইন ইনকাম বিস্তৃত সুযোগ রয়েছে।

এসইও শেখার জন্য সময় নিয়ে আপনি একটি মূল্যবান দক্ষতা শিখবেন, যা আপনার নিজের ব্যবসা শুরু করতে বা আপনি যে কোনও অনলাইন প্রকল্পের মূল্যবান হতে ব্যবহার করতে পারেন। 

মনে রাখবেন এসইও দিয়ে অর্থ উপার্জনের জন্য আপনাকে বিশেষজ্ঞ হতে হবে না। একবার আপনি বুনিয়াদি আয়ত্ত করে নিলে, আপনি যা শিখেছেন তা প্রয়োগ করেছেন এবং কিছু ফলাফল পেয়ে আপনি অনলাইন ইনকাম শুরু করতে পারেন।

অনলাইনে এসইও থেকে কিভাবে অনলাইন ইনকাম করা যায়, তা শেখার বিভিন্ন উপায় রয়েছে।

 শুরু করার কিছু সহজ উপায়গুলির মধ্যে রয়েছে আপওয়ার্কের মতো সাইটগুলিতে আপনার ফ্রিল্যান্স এসইও পরিষেবাগুলি সেল করা, ফাইভারে মাইক্রো-সার্ভিস দেওয়া, অথবা আপনার ফ্রিল্যান্স এসইও কপিরাইটিং পরিষেবা বিক্রি শুরু করা।

আপনি যদি এসইও পরিষেবার পদ্ধতি পছন্দ করেন, তবে আপনি আপনার নিজস্ব এসইও এজেন্সি গঠন করতে পারেন। এবং আপনার নিজের বড় আকারের ক্লায়েন্ট গ্রহণ করতে শুরু করতে পারেন।

SEO এর সাথে আপনার চূড়ান্ত বিকল্প হল আপনার নিজস্ব গ্রাহক-মুখী ওয়েবসাইট বা ব্যবসা তৈরি করা। সবচেয়ে সাধারণ পদ্ধতির মধ্যে রয়েছে:

  • সার্চ ইঞ্জিন ট্রাফিকের মাধ্যমে একটি জনপ্রিয় ব্লগ তৈরি করা এবং বিজ্ঞাপন অথবা এফিলিয়েট করে অনলাইন ইনকাম করা
  • সার্চ ইঞ্জিনগুলিতে একটি জনপ্রিয় ওয়েবসাইট তৈরি করা এবং সম্পর্কিত ফিজিক্যাল বা ডিজিটাল ইকমার্স পণ্য বিক্রি করা।
  • একটি জনপ্রিয় এসইও ব্লগ তৈরি করা এবং একটি এসইও কোর্সের মাধ্যমে আপনি যা শিখেছেন তা শেখান
  • আপনি একজন প্রফেশনাল ফ্রিল্যান্সার হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠা করুন

এসইও একটি মূল্যবান দক্ষতা, যা আপনাকে একটি নতুন চাকরি পেতে, একটি ব্যবসা তৈরি করতে বা এমনকি একটি ওয়েবসাইড থাকে অনলাইন ইনকাম করতে সাহায্য করতে পারে।

4 thoughts on “Why SEO (কেন এসইও) ? এসইও শিখে অনলাইন ইনকাম এর 9টি সেরা মাধ্যম”

  1. Pingback: ব্লগারদের জন্য গুগল এডসেন্স এর বিকল্প a-ads 2022 - websoriful

  2. Pingback: 3 টি মাধ্যমে মোবাইল দিয়ে টাকা ইনকাম করার উপায় ২০২২ - websoriful

Leave a Comment

Your email address will not be published.