মেয়েদের জন্য অনলাইন জব

সেরা 4টি মেয়েদের জন্য অনলাইন জব – আপনি এখনই শুরু করুন

35 Hits

বর্তমানে ছেলেদের পাশাপাশি মেয়েরা অনলাইন জব করে প্রচুর টাকা ইনকাম করে থাকে। মেয়েদের জন্য অনলাইন জব করে ইনকাম এর প্রচলন প্রতিনিয়ত বেড়েই চলেছে। মেয়েদের জন্য অনলাইন জব করে ইনকাম করার হাজার হাজার মাধ্যম রয়েছে। 

আজকে আমি সেরা 4টি মেয়েদের জন্য অনলাইন জব সম্পর্কে আলোচনা করব। এই মেয়েদের জন্য অনলাইন জব গুলো করে আপনিও অনলাইন থেকে প্রচুর টাকা ইনকাম করতে পারবেন।  আজকে আমি এই কাজগুলো সম্পর্কে বিস্তারিত বলবো। তো চলুন কথা না বলে শুরু করি

সেরা 4টি মেয়েদের জন্য অনলাইন জব:

ব্লগিং মেয়েদের জন্য অনলাইন জব: 

আপনার যদি লেখালেখি করতে ভালো লাগে এবং আপনি যদি লেখালেখি করতে পছন্দ করেন, তাহলে অবশ্যই আপনার ব্লগিং শুরু করা দরকার। কারণ আপনি লেখালেখি করে প্রতি মাসে লাখ টাকার বেশি ইনকাম করতে পারবেন যদি আপনি একটু পরিশ্রম করেন। 

লেখালেখি করে ইনকাম করাকেই ব্লগিং করে ইনকাম বলা হয়। এর জন্য আপনার অনেক বেশি পরিশ্রম করতে হবে না, শুধুমাত্র লেখালেখি করতে হবে বিভিন্ন বিষয় সম্পর্কে।

সর্বপ্রথম আপনাকে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করতে হবে এবং সেই ওয়েবসাইটে প্রতিনিয়ত আর্টিকেল লিখতে হবে। আপনার ওয়েবসাইটটা সম্পূর্ণ রেডি হওয়ার পরে যদি যথেষ্ট আর্টিকেল থাকে, তাহলে আপনি বিভিন্ন adsনেটওয়ার্কে আপনার ওয়েবসাইট মনিটাইজেশন করে ইনকাম করতে পারবেন।

বর্তমানে ওয়েবসাইট মনিটাইজেশন করার সবচেয়ে জনপ্রিয় মাধ্যম হচ্ছে অ্যাডসেন্স। অ্যাডসেন্স গুগোল এর দ্বারা পরিচালিত একটি এড নেটওয়ার্ক। গুগল এডসেন্স এর সাহায্যে অনেক তরুণ-তরুণী তাদের ওয়েবসাইট মনিটাইজেশন করে অনলাইন থেকে ইনকাম করে থাকে।

সব থেকে ভালো ব্যাপার হচ্ছে ব্লগিং করে আপনি প্যাসিভ ইনকাম জেনারেট করতে পারবেন। প্যাসিভ ইনকাম হচ্ছে একটি কাজ নির্দিষ্ট সময়ের জন্য করে সেই কাজের জন্য অনেক বেশি সময় বেনিফিট পাওয়া। অর্থাৎ আপনি যদি একটি আর্টিকেল লিখেন, সেই আর্টিকেল যদি 20 বছর পরে কেউ ভিজিট করে, তারপরও আপনি সেই আর্টিকেল থেকে ইনকাম করতে পারবেন।

ব্লগিং করে গুগল এডসেন্স থেকে ইনকাম এর স্টেপ সমূহ:

  1.  সর্বপ্রথম আপনাকে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করতে হবে
  2.  ওয়েবসাইটে আর্টিকেল লিখতে হবে
  3.  ওয়েবসাইট সম্পূর্ণ রেডি হওয়ার জন্য পর গুগল এডসেন্স অ্যাকাউন্ট তৈরি এবং আবেদন
  4.  গুগোল অ্যাডসেন্সে অ্যাপ্রভে হওয়ার পর সাইটের বিভিন্ন অংশে এডসেন্স এর কোড বসানো
  5. এবং 100 ডলার হওয়ার পর প্রতি মাসের 20 থেকে 23 তারিখের মধ্যে আপনার ব্যাংকে টাকা  আসবে

আপনার এই 5টি স্টেপ পূরণ করার পর আর আপনাকে কিছুই করতে হবে না। আপনি শুধুমাত্র প্রতিনিয়ত আর্টিকেল লিখতে থাকবেন। এবং প্রতি মাসের শেষের দিকে আপনার ব্যাংকে টাকা আসতে থাকবে।

ব্লগিং করে ইনকাম করতে হলে আপনার যা যা থাকতে হবে:

  1.  আপনার অবশ্যই একটি স্মার্টফোন অথবা কম্পিউটার থাকবে
  2.  ইন্টারনেট কানেকশন থাকতে হবে

ব্লগিং বা এডসেন্স থেকে ইনকাম করতে হলে অবশ্যই আপনার একটি কম্পিউটার থাকতে হবে এরকম কোন বাধ্যবাধকতা নেই। আপনি আপনার স্মার্টফোনের সাহায্যে ব্লগিং করে ইনকাম করতে পারবেন।

আপনি যদি ভেবে থাকেন মোবাইল দিয়ে কিভাবে ব্লগিং করে ইনকাম করা সম্ভব?  তাহলে নিচের আর্টিকেলটি মনোযোগ সহকারে পড়ুন

কিভাবে মোবাইল দিয়ে ব্লগিং শুরু করবেন? (বিস্তারিত গাইড)

উপরের আর্টিকেল পড়ে বুঝতে পেরেছেন, মোবাইল দিয়ে ব্লগিং করে ইনকাম করা সম্ভব। এখন আপনার প্রশ্ন হতে পারে, মোবাইল দিয়ে ওয়েবসাইট তৈরি করব কিভাবে?

 চিন্তার কোন কারণ নেই, আরো একটি সমাধান রয়েছে। আপনি নিচের আর্টিকেলটি গুরুত্ব সহকারে পড়ুন তাহলে বুঝতে পারবেন। 

মোবাইল দিয়ে ব্লগিং করে ইনকাম ফ্রী কোর্স

ফ্রিল্যান্সিং করে ইনকাম:

মেয়েদের জন্য অনলাইন জব এর মধ্যে সবথেকে ভালো জব ফ্রিল্যান্সিং করে ইনকাম। বর্তমানে এই ডিজিটাল যুগে বাংলাদেশের লাখ লাখ মেয়ে ফ্রিল্যান্সিং করে প্রতি মাসে লাখ লাখ টাকা ইনকাম করে। আপনি চাইলে ফ্রিল্যান্সিং করে লাখ লাখ টাকা ইনকাম করতে পারবেন। তবে এর জন্য আপনাকে প্রথমে ফ্রিল্যান্সিং কাজ শিখতে হবে।

ফ্রিল্যান্সিং করে ইনকাম করার জন্য প্রথমে আপনার যে পদক্ষেপগুলো অবলম্বন করতে হবে:

  1. আপনার অবশ্যই একটি কম্পিউটার থাকতে হবে
  2. ইন্টারনেট কানেকশন থাকতে হবে
  3. কোন একটি বিষয়ে আপনার কাজ শিখতে হবে
  4. ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস একাউন্ট করতে হবে

ফ্রিল্যান্সিং কাজ করার জন্য আপনাকে যে কোন একটি বিষয়ে দক্ষ হতে হবে। সেই কাজের উপর ভিত্তি করে আপনি মার্কেটপ্লেসে একাউন্ট করবেন এবং মার্কেটপ্লেস থেকে ইনকাম করবেন। 

যেহেতু আপনি নতুন, আপনি ফ্রিল্যান্সিং কিভাবে শিখবেন? 

চিন্তার কোন কারণ নেই। আপনার নতুন অবস্থায় ফ্রিল্যান্সিং শেখার সাহায্য করার জন্য আমি একটি আর্টিকেল তৈরি করেছি। নিজের আর্টিকেলটি পড়ুন:

নতুনদের জন্য ফ্রিল্যান্সিং – ফ্রিল্যান্সিং শিখুন অনলাইনে সম্পূর্ণ ফ্রী

ফ্রিল্যান্সিং শেখার জন্য আপনি সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।  এখন আপনি কোন স্কিল এর উপর কাজ শিখবেন?  কোন কাজটি দ্রুত শিখতে পারবেন এবং সহজে ইনকাম করতে পারবেন? এইসব সাধারণ প্রশ্ন আপনার মনে থাকতেই পারে।  

আপনার মনে যদি ওপরে প্রশ্নগুলো থেকে থাকে, তাহলে আপনাকে অবশ্যই নিচের আর্টিকেলটি মনোযোগ সহকারে পড়তে হবে:

ফ্রিল্যান্সিং কিভাবে শিখবো (সাকসেসফুল ফ্রিল্যান্সার হওয়ার জন্য 9টি ধাপ)

আশা করি আপনি ফ্রিল্যান্সিং শেখার জন্য খুব ভালো একটি সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। ফ্রিল্যান্সিং সম্পর্কে আপনার যদি কোন প্রশ্ন থাকে অবশ্যই কমেন্ট করে জানাতে পারেন। আমরা ইতিমধ্যে সেরা 4টি মেয়েদের জন্য অনলাইন জব এরমধ্যে দুইটি সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে আলোচনা করেছি। 

এখন আমরা তিন নম্বর মেয়েদের জন্য অনলাইন জব টি সম্পর্কে কথা বলব। তো চলুন তিন নম্বর জব সম্পর্কে আলোচনা করা যাক। তিন নম্বর মেয়েদের জন্য অনলাইন জব টি হচ্ছে,

সোশ্যাল মিডিয়া থেকে ইনকাম:

মেয়েদের জন্য অনলাইন জব

মেয়েদের জন্য অনলাইন জব গুলোর মধ্যে সবথেকে জনপ্রিয় হচ্ছে সোশ্যাল মিডিয়া থেকে ইনকাম।  এখন আপনার প্রশ্ন হতে পারে সোশ্যাল মিডিয়া থেকে কিভাবে ইনকাম করবো?

সোশ্যাল মিডিয়া থেকে ইনকাম করতে হলে অবশ্যই আপনাকে ভিডিও ক্রিয়েটর হতে হবে। আপনিও যদি ভিডিও বানাতে পছন্দ করেন, তাহলে এই পেশাটি আপনি বেছে নিতে পারেন। এর জন্য আপনার ফেস না দেখালেও চলবে।

সোশ্যাল মিডিয়া থেকে ইনকাম বলতে ইউটিউব এবং ফেসবুকের কথা আমি বুঝিয়েছি।  এক ভিডিও তৈরি করে আপনি এই দুইটি মাধ্যম থেকে অনলাইন ইনকাম করতে পারবেন। একসময় শুধু ইউটিউব থেকেই ভিডিও থেকে ইনকাম করা যেত।

কিন্তু বর্তমানে ভিডিও থেকে ইউটিউব এর চেয়ে ফেসবুকে বেশি টাকা ইনকাম করা যায়। ইউটিউব এবং ফেসবুকের ভিডিও তৈরি করার জন্য অনেকগুলো ক্যাটাগরি রয়েছে। আপনার পছন্দমত যেকোনো একটি ক্যাটাগরির সিলেক্ট করে সেই ক্যাটাগরি রিলেটেড ভিডিও আপলোড করতে থাকুন।  

একসময় দেখবেন আপনি লাখ টাকারও বেশি ইনকাম করতে সক্ষম হচ্ছেন। এবং ইনকাম প্রতিনিয়ত বৃদ্ধি পেতে থাকবে। সোশ্যাল মিডিয়া থেকে ইনকাম হচ্ছে প্যাসিভ ইনকাম।  

আপনি যদি 2-3  মাস কাজ অফ করে দেন বা একবার অফ করে দেন, তাও আপনার একাউন্টে টাকা যুক্ত হতে থাকবে। মেয়েদের জন্য অনলাইন জব গুলোর মধ্যে সোশ্যাল মিডিয়া আপনি পছন্দ করতে পারেন। মেয়েদের জন্য অনলাইন জব এর আরেকটি জনপ্রিয় কাজ হচ্ছে মেকআপ আর্টিস্ট। 

মেকআপ আর্টিস্ট:

মেয়েদের জন্য অনলাইন জব

মেকআপ আর্টিস্ট মেয়েদের জন্য অনলাইন জব গুলোর মধ্যে একটি উপযুক্ত কাজ। আপনি যদি নিজে মেকআপ করতে পছন্দ করেন এবং অন্যকেও মেকআপ করিয়ে দিতে পছন্দ করেন। তাহলে আপনি এই পেশাকে বেছে নিতে পারেন।

অন্যান্য পেশার তুলনায় এই পেশাতে আপনি অনেক বেশি টাকা ইনকাম করতে পারবেন। কারণ এই পেশার সাহায্যে আপনি দুই ভাবে অনলাইন থেকে ইনকাম করতে পারবেন। ইউটিউব এবং ফেসবুকে ভিডিও দিয়ে ওই ভিডিওর সাহায্যে অনলাইন থেকে ইনকাম।

এছাড়া মেকআপ ব্যবহার করার জন্য বিভিন্ন প্রোডাক্ট আপনি বিক্রি করতে পারবেন। আপনার ভিডিও যারা দেখবে এই প্রোডাক্ট গুলো তারাই ক্রেতা হবে। আপনি প্রচুর সংখ্যক এর প্রোডাক্ট গুলো বিক্রি করতে পারবেন।

এছাড়াও বিভিন্ন কোম্পানি থেকে স্পনসর্শিপ তো আছেই। বিভিন্ন কোম্পানি থেকে স্পনসর্শিপ থেকেও প্রচুর ইনকাম করতে পারবেন। তাছাড়া আপনি অনেক ক্লায়েন্ট পাবেন, যারা আপনার কাছে মেকআপ  করার জন্য আসবে।

সুতরাং বুঝতেই পারছেন এখান থেকে আপনি কি পরিমাণ টাকা ইনকাম করতে পারবেন। আপনি যদি একজন মেয়ে হয়ে থাকেন, তাহলে সেরা 4টি মেয়েদের জন্য অনলাইন জব গুলোর মধ্যে যেকোনো একটি বেছে নিতে পারেন।

উপসংহার:

মেয়েদের জন্য অনলাইন জব গুলোর মধ্যে  আমি 4টি সম্ভাবনা এবং ইউনিক জব সম্পর্কে আলোচনা করেছি। এগুলো আসলে মেয়েদের জন্য অনলাইন জব বললে ভুল হবে,  এগুলো কে আপনি মেয়েদের জন্য অনলাইনে প্যাসিভ ইনকাম বলতে পারেন।

আমি আপনাদের সঠিক এবং নির্ভরযোগ্য তথ্য দেওয়ার চেষ্টা করেছি। আপনি যদি একজন মেয়ে থাকে হয়ে থাকেন, তাহলে সেরা 4টি জন্য অনলাইন জব গুলোর মধ্যে যেকোনো একটি এখনই শুরু করে দেন।

আপনার যদি প্রশ্ন বা কোনো পরামর্শ থাকে, তাহলে অবশ্যই কমেন্ট করে জানাতে পারেন। আমি সমস্ত কমেন্ট মনোযোগ সহকারে পড়ে উত্তর দেয়ার চেষ্টা করব। ভুল ত্রুটি মার্জনীয়।

সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ার জন্য সবাইকে অসংখ্য ধন্যবাদ

Leave a Comment

Your email address will not be published.